অং সান সু চি সেনাবাহিনীর হাতে আটক

মিয়ানমারের রাষ্ট্রপতি উইন মিন্ট, ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সু চিসহ ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ কয়েকজন নেতা দেশটির সেনাবাহিনীর হাতে আটক হয়েছেন।
সোমবার ভোরে শীর্ষ এসব নেতাদের আটক করা হয়েছে বলে সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের মুখপাত্র মায়ো নিউন্ট।

তিনি বলেন, আমি জনগণকে উত্তেজিত প্রতিক্রিয়া না দেখানোর আহ্বান জানাই। তারা যেন আইন অনুসারে প্রতিক্রিয়া জানায়।

এদিকে বিবিসির দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সংবাদদাতা জোনাথন হেড বলেছেন, রাজধানী নেপিটো এবং প্রধান শহর ইয়াঙ্গুনের রাস্তায় সৈন্যরা নেমে পড়েছে। বিবিসির বার্মিস সার্ভিসের খবরে বলা হয়েছে, নেপিটোয় টেলিফোন ও ইন্টারনেট লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে।

দেশটির সামরিক বাহিনী গত বছরের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ব্যাপক ভোট জালিয়াতির অভিযোগ তোলে। সেনাবাহিনী নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে সোমবার বসতে যাওয়া সংসদ অধিবেশন বাতিলের দাবি জানায়।

অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) ওই নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় পায়। তবে সেই নির্বাচনে সংঘাতপূর্ণ অঞ্চলের ভোটারদের ভোট বঞ্চিত করার সমালোচনা করেছিল মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো। আর সেনাবাহিনী সমর্থিত বিরোধী জোট নির্বাচনে দাবি করে নির্বাচনে ৮.৬ মিলিয়ন ভোট জালিয়াতির ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার দেশটির নির্বাচন কমিশন এক বিবৃতিতে নিজেদের অবস্থান জানায়। নির্বাচন মুক্ত ও গ্রহণযোগ্য হয়েছে এবং জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটেছে উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশন ভোট জালিয়াতি অভিযোগ অস্বীকার করে। তবে ভোটার তালিকায় কিছুটা ত্রুটি ছিল স্বীকার করে নির্বাচন কমিশন ২৮৭টি অভিযোগ তদন্ত করে দেখছে বলে জানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *