আন্দুলবাড়ীয়ায় আইসক্রিম ফ্যাক্টরিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান

তাহসানুর রহমান শাহ জামালঃ

জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নে কুলতলা হক রাইস মিলের মালিক মোঃআশাদুল হক (৬০)কে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর আইনে ২০০৯ মৈসাস হক-আইসক্রিম ফ্যাক্টরিতে ৪০০০ হাজার টাকা জরিমানা করে।

 (৩০ এপ্রিল )শুক্রবার ১০ টার দিকে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের শ্রদ্ধেয় মহাপরিচালক মহোদয় ও জেলা প্রশাসক মহোদয়, চুয়াডাঙ্গা এর সার্বিক নির্দেশনায় চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক জনাব সজল আহমেদ এর নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হয়।

আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের কুলতলা গ্রামের নিশ্চিন্দপুর রাস্তায় হক আইসক্রিম ফ্যাক্টরিতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে আইসক্রিম উৎপাদন ও বিক্রির করে আসছিলো । ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৪০০০ টাকা জরিপানা ও স্যাকারিনযুক্ত আইসক্রিম বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, অনেকদিন ধরেই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি হয়ে আসছিল আইসক্রিম। আর এই আইসক্রিম আশপাশের প্রতিটি এলাকায় হকারের মাধ্যমে বিক্রি করা হতো।যার ফলে ছোট ছোট বাচ্চারা এই আইসক্রিম খেয়ে বিভিন্ন ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

এর আগে অনেকবার এলাকাবাসী অভিযোগ দিলে বিষয়টি কেউ মাথা নাড়েনি। পরে বিষয়টি সাংবাদিককে জানালে সাংবাদিক ঘটনাস্থলে গেলে আসাদুল হক ধাক্কাধাক্কি করে। এবং বিভিন্ন ভাবে বাধা প্রয়োগ করে। যাতে বিষয়টি না কিছু করতে পারে।

পরবর্তীতে এলাকাবাসী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযোগ দিলে, টিমটি ঘটনাস্থলে এসে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করে। পরবর্তীতে এরকম ঘটনা ঘটলে কঠোর ভাবে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *