আশুলিয়ায় নির্মাণাধীন ভবন ধস বেঁচে গেল শিক্ষার্থী সহ দুইটি পরিবার

আশুলিয়ায় বহুতল ভবন নির্মাণে মানা হচ্ছে না বিল্ডিং কোড আইন সহ নেয়া হচ্ছে না নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সুত্রে জানা যায়ঃ আশুলিয়ার জামগড়া মনি মার্কেট কে এম হাবিবুর রহমান এর ৫ম তলা ভবনে নির্মাণাধীন ওয়াল ধসে অল্পের জন্যে বেঁচে গেছে শিক্ষার্থী সহ পাশের বাড়ির দুইটি রুমের ভাড়াটিয়া।

এমন সংবাদের ভিক্তিতে ঘটনা স্থলে গেলে দেখা যায়ঃ কে এম হাবিবুর রহমানের নির্মাণাধীন বাড়ীর চার পাশে রয়েছে টিন সেট বাড়ি। অথচ দীর্ঘদিন যাবত নিরাপত্তা বিহিন বহুতল ভবন নির্মাণ কাজে নেয়া হচ্ছে না কোন ধরনের কঠোর সেপ্টিং কোন ব্যবস্থা চলছে কাজ । মানা হচ্ছে না নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা।

ভুক্তভুগি ভাড়াটিয়া জানান এক ইস্কুল পড়ুয়া ছাত্রী বাসায় থাকা অল্পের জন্যে বেঁচে সহ বাসায় কেউ না থাকায় দুইটি পরিবার।

এলাকা বাসী বলেনঃ আশুলিয়ায় প্রতিনিয়তই ঘটছে নির্মাণধীন বহুতল ভবন থেকে পড়ে শ্রমিক মৃত্যুর ঘটনা সহ নানা দূর্ঘটনা। আর ঘটনায় আহত বা মৃত ব্যক্তির দাফন বা চিকিৎসা করে ঘটানা আড়াল করতে টাকা পয়সা দিয়েও সমস্যা সমাধান করছেন বাড়িওয়ালারা। স্থানীয় প্রশাসন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় কাউকেই তোয়াক্কা করছেন না এরা।

এবিষয়ে বাড়ির মালিক কে এম হাবিবুর রহমান বলেন গত ১৪/০৩/২০২১ ইং তারিখ হঠাৎ অল্প বাতাসেই ৫ম তলা ভবন থেকে নির্মাণাধীন ওয়াল ভেঙে পাশের মাজহারুল ইসলামের বাড়ির টিনের চালে পরলে টিন ছিদ্র হয়ে ইট পরে আসবাপত্র ভাংচুর হয়।

আমি সকল আসবাবপত্র ভাংচুরের ক্ষতি পুরন দিয়ে দিয়েছি। এখানে কোন হতাহতের কোন ঘটনা ঘটে নি।, কাজে নিরাপত্তার ব্যবস্থা সঠিক ভাবে নেয়া হচ্ছে না বলে উক্ত বিষয়ে স্বীকারও করেন বাড়ির মালিক হাবিবুর রহমান ।

মানুষের খতি হতে পারতো জানতে চাইলে আল্লাহ চাইলে আর কি করার আছে বলেন। বলে এবিষয়ে এরিয়ে যান তিনি।

আশপাশের বাড়ীওয়ালারা বলেন ওনাকে বারবার এবিষয়ে বললেও কোন কাজ হয়নি। এদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করলেই হয়তো নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কাজ করবেন বলে আশাবাদী বাড়ীর মালিক গন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *