আশুলিয়ায় স্ত্রীকে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ স্বামী

আশুলিয়া প্রতিনিধি

 

আশুলিয়ায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে গলা চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেছে স্বামী। এঘটনায় নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।
সোমবার (২ মার্চ) দুপুরে হত্যা মামলা দায়েরের পর আসামী জলিলকে আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে গতকাল রবিবার রাত প্রায় তিনটার দিকে আশুলিয়ার নরসিংপুরের ইটখোলা এলাকায় ওই গৃহবধূর ভাড়া বাসায় এই হত্যাকান্ড ঘটে।
নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে আশুলিয়া থানার পুলিশ উপ পরিদর্শক (এসআই) মিরাজ হোসেন জানান, প্রায় ২-৩ বছর পূর্বে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয় জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার চরভদ্রাসন গ্রামের শামসুন্নাহারের সাথে পার্শবর্তী এলাকার বাঘাডোবা গ্রামের জলিল হোসেনের। এরপর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগে থাকতো। এছাড়া নানা সময় যৌতুকের জন্য শামসুন্নাহারকে নির্যাতন করতো জলিল। সর্বশেষ গতকাল রবিবার দিবাগত মধ্যরাতে শামসুন্নাহার মারা গেছে বলে বাড়িতে ফোন করে জানায় তার স্বামী এবং নিজে আশুলিয়া থানায় এসে হত্যার কথা স্বীকার করলে পুলিশ তাকে আটক করে। স্বজনদের দাবি নিহত শামসুন্নাহার ৩ মাসের অন্ত:সত্বা ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *