আশুলিয়ায় ২৫ লাখ টাকা ছিনতাই, গ্রেপ্তার-১

আশুলিয়া থানার বাড়ইপাড়া বাসষ্টেশন এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার সকালে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীর প্রায় ২৫ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।

ছিনতাইয়ের পর পালিয়ে যাওয়ার সময় এক ছিনতাইকারীকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, টাঙ্গাইলের কালিহাতি থানার ভন্ডেস্বর এলাকার আরান রাজবংশীর ছেলে স্বর্ণ ব্যবসায়ী পরীক্ষিত রাজবংশী একটি মোটরসাইকেল যোগে বৃহস্পতিবার স্বর্ণ কিনার জন্য রাজধানী ঢাকায় যাচ্ছিলেন।

যাওয়ার পথে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের ঢাকার আশুলিয়া থানার বাড়ইপাড়া বাসষ্টেশন এলাকা পৌছে মায়ের দোয়া নামের একটি হোটেলে সকালের নাস্তার করছিলেন।

এসময় একদল ছিনতাইকারী নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয়ে টাকার ব্যাগসহ ওই ব্যবসায়ীকে তোলে নেওয়ার চেষ্টা করে। তিনি তাদের সঙ্গে যেতে না চাইলে তাকে মারধরও করে ডিবি পরিচয়দানকারী ছিনতাইকারীরা।পরে ওই ছিনতাইকারীরা তাদের মিস্টি রংয়ের নোহা গাড়িতে জোরপূর্বক তোলেন।

এসময় ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীর শ্যালক মনোরঞ্জন রাজবংশী পিছন থেকে এক ছিনতাইকারীকে ঝাপটে ধরে। পরে ওই গাড়ি যোগে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে নিয়ে পালিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা।

বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজন ওই ছিনতাইকারীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

ঘটনার ঘন্টাখানেক পর তার স্বর্ণের চেইন ও ২৪ লাখ ৭৭ হাজার টাকা লুট করে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার দেওহাটা এলাকায় ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে ফেলে দেয় ছিনতাইকারীরা।

পরে খবর পেয়ে ওই ব্যবসায়ীর স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে আশুলিয়া থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ী পরীক্ষিত রাজবংশী বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফজর আলী জানান, ছিনতাইকালে স্থানীয় লোকজন এক ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ওই ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তবে লন্ডিত টাকা উদ্ধার ও বাকী ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *