আশুলিয়া ইউনিয়নের মেম্বার হোসেন আলী মাষ্টারের উন্নয়ন ও সাফল্য চোখে পড়ার মত

মোঃ নজরুল ইসলাম:

মোঃ হোসেন আলী মাস্টার সর্বদা সদালাপী সু-শিক্ষিত, বিনয়ী, কর্মপরায়ণ ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের অতি আপনজন, সমাজ হিতৈষী আশুলিয়া ইউপি আওয়ামী লীগের বর্তমান যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এবং আশুলিয়া ইউপির ৪ নং ওয়ার্ডের দুই দুই বার নির্বাচিত মেম্বার এবং প্যানেল চেয়ারম্যান মো: হোসেন আলী মাস্টার। গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে আলাপ কালে হোসেন আলী মাস্টার  বলেন, আশুলিয়া ইউপির ৪ নং ওয়ার্ডকে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকের করাল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন। মাস্টার সাহেব বলেন আমি আশুলিয়া ইউপির ৪ নং ওয়ার্ডে দুই বারের নির্বাচিত মেম্বার। বিগত দিনে আমার পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছি, তিনি আরো জানান বিগত পাচঁ বছর এবং বর্তমানে পূনরায় নির্বাচিত হয়ে ইতি মধ্যে আমি আমার কর্মক্ষমতা দিয়ে আমার এলাকার ৪ নং ওয়ার্ডের জনগনের অনেক কাছে যেতে পেরেছি বলে আমি মনে করি। আলাপচারিতায় জানা যায়, মেম্বার হিসাবে তার উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড নিয়ে তার মুখোমুখি হতেই শত ব্যস্ততার  মাঝেও তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন আশুলিয়া ইউপির ৪ নং ওয়ার্ডকে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকমুক্ত করতে সব রকমের চেষ্টা অব্যাহৃত রেখেছি। আমি শুধু মেম্বার হিসাবেই নয় একজন সচেতন নাগরিক ও সমাজ সেবক হিসাবে সকল অপরাধ মূলক কর্মকান্ড কঠোর ভাবে প্রতিহত করব ইনশাআল্লাহ। হোসেন আলী মাস্টার জানান আমি চাই অত্র এলাকাসহ সারাদেশে মাদক-সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ গড়ে উঠুক এবং সবাই সন্ত্রাস ও মাদককে না বলুক। এলাকার তথা দেশে ছেলে মেয়েরা সু শিক্ষায় শিক্ষিত হোক আমাদের দেশটি ডিজিটাল সোনার বাংলা হিসাবে গড়ে উঠুক এ প্রত্যাশা আমার এবং দেশের সকলের। দুই বারের নির্বাচত মেম্বার এবং প্যানেল চেয়ারম্যান হোসেন আলী মাস্টার জানান আমি বিগত কর্মজীবনের দোসাইদ স্কুল এন্ড কলেজে দীর্ঘ ১৫ বছর যাবৎ সততা ও নিষ্ঠার  সাথে শিক্ষকতা করেছি। এছাড়া বর্তমানে আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতি সাথে সম্পৃক্ত আছি। আমার এলাকার ৪নং ওয়ার্ডের জনগন আমাকে প্রথম বার মেম্বার নির্বাচিত করে। পরবর্তীতে জনগন আমাকে ভালোবেসে পূনরায় ভোট দিয়ে দ্বিতীয় বারের মত মেম্বার নির্বাচিত করেছেন। আমি আমার এলাকার মানুষের কাছে চিরকৃতজ্ঞ এবং আমি একজন শিক্ষক হিসাবে আমাকে আমার এলাকার মানুষ যে সম্মান ও ভালোবাসা দিয়েছে আমি তাদের সম্মান ও ভালোবাসা ধরে রাখতে সাধ্য মত চেষ্টা করে যা”িছ এবং এলাকার সকলের সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করছি। আলাপচারিতার এক পর্যায়ে মাস্টার তার এলাকার উন্নয়নের ব্যাপারে বলেন, চারাবাগ কদম মার্কেট থেকে ইয়াকুবের বাড়ি পর্যন্ত ২৬০০ ফিট রাস্তা (হেরিং বোন্ড) নির্মান কাজ সম্পন্ন করতে সক্ষম হেেয়ছেন, আনোয়ার জং সড়ক হইতে খালেকের বাড়ি পর্যন্ত ২০০০ ফিট (হেরিং বন্ড) রাস্তা, চারাবাগ ঈদগাহ মাঠ হইতে বঙ্গবন্ধুরোড সংযোগ সড়ক পর্যন্ত ২০৫০ফিট  (হেরিং বন্ড) রাস্তা, বাসাইদ পূর্ব পুকুর পাড় হইতে মোজাহিদ গার্মেন্টস পর্যন্ত ১৬০০ ফিট রাস্তা, কুমকুমারী বাজার চৌকিদার আব্দুর রহমানের বাড়ি হইতে রুজুর বাড়ি পর্যন্ত ১৭০০ ফিট আর.সি.সি ঢালাই রাস্তা, জাকিরের মার্কেট হইতে নুর ইসলামের দোকান পর্যন্ত ১১০০ ফিট আর.সি.সি রাস্তা, উমিদ আলীর দোকান হইতে আতা মিয়ার বাড়ি পর্যন্ত আর.সি.সি রাস্তা, কুমকুমারী গার্মেন্টস থেকে বিল্লাল এর বাড়ি পর্যন্ত ড্রেন ১০০০ ফিট, চারাবাগ মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম দারোগার বাড়ি হইতে জহির মাষ্টার বাড়ি পর্যন্ত ১৪০০ ফিট ড্রেন নির্মান করা হয়েছে।

এবছর মহামারী দুর্যোগের মধ্যেও আশুলিয়া চারাবাগ আমতলা থেকে জামিয়া আহমাদিয়া আফসানিয়া মাদ্রাসা পর্যন্ত পানি নিস্কাসনের জন্য ড্রেন নির্মান করেছি। আশুলিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড এলাকার হানিফ খলিফার বাড়ির পাশ থেকে হুকু মাষ্টরের বাড়ি পর্যন্ত পানি নিস্কানসের জন্য ড্রেন নির্মান করেছি। সাভার টু আশুলিয়া আনোয়ার জং সড়কের দুসাইদ এলাকার অনির্বান উন্নয়ন সমিতির মার্কেট সংলগঘœ বাসাইদ সংযোগ সড়কের ঢালু অংশ আনোয়ার জং সড়কের চারাবাগ চৌরাস্তায় চলতি বর্ষায় জলাব্ধতার কারণে ভাড়ী যানবাহনের চাকায় ইটা মাটি সরে গিয়ে বিশালাকার গর্তে পরিনত হয়ে বেহাল অব¯’ার সৃষ্টি হয়। এমতাব¯’ায় যানবাহন ও পথচারীদের কথা বিবেচনা করে সরকারী অর্থায়নে সড়ক সংস্কারে নামলেন ¯’ানীয় ইউপি সদস্য আশুলিয়া ইউনিয়নের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ হোসেন আলী মাষ্টার।ইতিমধ্যে দোসাইদ এর বেহাল দৃশ্যকে বদলে দিয়ে চারাবাগ চৌরাস্তার বেহাল অব¯’ার পরিবর্তন করার কাজ শুরু করেছে। যানবাহন চলাচলের সুবিধার্থে দিনের বেলায় কাজ না করে সন্ধ্যার পর শ্রমিকদেরকে কাজে লাগিয়েছেন কাজের মান উন্নয়নে তিনি নিজে দাড়িয়ে থেকে কাজে তদারকি করেছেন।

মোঃ হোসেন আলী মাষ্টার বলেন, চারাবাগ চৌরাস্তার চারদিকে সম্প্রতি উঁচু ভিটের দোকান পাট নির্মিত হওয়ায় সড়কটি অনেক নিচু অব¯’ায় হয়ে গেছে ফলে এই বর্ষায় এখানে পানি জমে সড়কের ঢালাই কারপেটিং উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। পথচারী ও যানবাহনের নির্বিঘেœ চলাচল নিশ্চিত করতেই সড়কটির ভাঙ্গা জায়গা মেরামত করা”িছ।

তিনি আরো বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলার রুপকার জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নৌকা প্রতীকের সুযোগ্য চেয়ারম্যান, ঢাকা জেলা উত্তর স্বে”ছাসেবলীগের সম্মানিত সহ-সভাপতি আলহাজ্জ্ব সাহাবুদ্দীন মাতবরের দিক নির্দেশনায় এলাকার সর্বপ্রকার নাগরিক সমস্যার সমাধানের কাজ করে যা”িছ। আমার এলাকার প্রায় সবগুলো সড়ক ইতিমধ্যে পাকা করা হয়েছে। হাটবাজার ও আবাসিক এলাকাগুলোর পানি নিস্কাসনের জন্য ড্রেনেজ ¯’াপন করা হয়েছে। শুধু এলাকার অবকাঠামোগত উন্নয়নই নয়, এলাকার সার্বিকদিকেই উল্লেখযোগ্য হারে উন্নয়ন হয়েছে। নিরাপদ ও স্বা”ছন্দপূর্ন হয়েছে ব্যবসায়ী, শ্রমজীবী, গার্মেন্টস শ্রমিকদের জীবনমান সর্ব প্রকার নাগরিক সমস্যা ও মাদক মুক্ত একটি আদর্শ নগরীতে উন্নীত হ”েছ আমাদের এলাকা। আমি আরো বড় স্বপ্ন দেখি। স্বপ্ন দেখি আমার প্রিয় এলাকাটিকে একটি আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলার। সকলের সহযোগিতা থাকলে আমার এই স্বপ্ন পূরন হবেই ইনশাআল্লাহ। সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশেও বৈশ্বিক মহামারী করনায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মানুষের জনজীবন। এরই ধারাবাহিকতায় সাভার উপজেলায় খাদ্য সংকটে পড়েছে অসহায় দরিদ্র দিনমজুর কর্মহীন প্রতিবন্ধী মানুষ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্য দেশরতœ শেখ হাসিনার নির্দেশে ¯’ানীয় সংসদ সদস্য ও দুর্যোগ ব্যব¯’াপনা ত্রান প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজিব ও আশুলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলহাজ্জ সাহাবুদ্দীন মাদবরের নির্দেশনা অনুযায়ী লকডাউন মেনে চলা, ঘরে থাকা অসহায় দরিদ্র দিনমজুর কর্মহীন অস”ছল মানুষের সেবায় সর্বদাই নিজ দায়িত্ব পালন করে আসছে। আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড এর মেম্বার ও আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হোসেন আলী মাষ্টার। করোনা মহামারী প্রতিরোধে এলাকার ভাড়াটিয়া সহ পেশাজীবি মানুষের ঘরে ঘরে ধারাবাহিক ভাবে খাদ্য সামগ্রী সহ বিভিন্ন সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেন। সরকারী সহযোগিতার পাশাপাশি নিজেও নিজের অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করে। কাচা বাজার, তরিতরকারী সহ বিভিন্ন খাদ্য সহায়তা করেন। নিজের ওয়ার্ডের জনগনের জীবন রক্ষায় করনার ভয়কে ভূলে গিয়ে দিনরাত মানুষের সেবায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে যা”েছন হোসেন আলী মাষ্টার। করনা যুদ্ধের শুরু থেকেই অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে আসছেন সেই সাথে সচেতনতা সৃষ্টিতে দিন রাত কাজ করে যা”েছন। তার মধ্যেও এগিয়ে চলেছে আশুলিয়ার ধারাবাহিক উন্নয়ন। ৪ নং ওয়ার্ডের কুমকুমারী বাজার সহ বিভিন্ন এলাকার সড়ক উন্নয়ন হ”েছ। পাকা সড়ক পেয়ে করোনার মাঝেও মুখে হাসি এলাকাবাসীর। তাই এলাকাবাসীর দাবী হোসেন আলী মাষ্টারকে আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক করা হোক। যতদিন জনগনের মুক্তি না মিলে ততদিন মানুষের সেবায় মেম্বার হোসেন আলী মাষ্টারকে কাছে পাবেন এমনটাই এলাকাবাসীর প্রত্যাশা।

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *