ইংল্যান্ডের জয়ে শুরু

বড় মঞ্চে ১৩৯ দিন পর প্রত্যাবর্তন হলো ওয়ানডে ‍ক্রিকেটের। ১৩ দলের ওয়ানডে সুপার লীগের উদ্বোধনী ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে ইংল্যান্ড। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর বৃহস্পতিবার প্রথমবার দেশের মাটিতে ওয়ানডে খেলতে নামে এউইন মরগানের দল। সাউদাম্পটনের রোজ বোলে ডেভিড উইলির ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৪ ওভারে ১৭২ রানে গুটিয়ে যায় আয়াল্যান্ড। জবাবে ২৭ ওভার ৫ বলে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১২ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। ২ রান করে অ্যান্ডি ম্যাকব্রাইনের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন জনি বেয়ারস্টো। জেসন রয় (২২ বলে ২৪) ও জেমস ভিন্স (২১ বলে ২৫) ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন। দু’জনই ফিরেছেন আইরিশ মিডিয়াম পেসার ক্রেইগ ইয়ংয়ের শিকার হয়ে।
বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি টম ব্যান্টন (২৪ বলে ১১)। ৭৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে তখন চাপে ইংল্যান্ড। সেখান থেকে পাল্টা আক্রমণ শুরু করেন স্যাম বিলিংস ও অধিনায়ক মরগান। পঞ্চম উইকেটে ৯৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ১৩৩ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। স্যাম বিলিংসের ৫৪ বলে অপরাজিত ৬৭ রানের ইনিংসটি সাজানো ১১ বাউন্ডারিতে। ২ ছক্কা ও ৪ বাউন্ডারিতে ৪০ বলে ৩৬ রানে অপরাজিত থাকেন মরগান।

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভাল হয়নি আয়ারল্যান্ডের। এক বছরেরও বেশি সময় পর ওয়ানডে খেলতে নামা ডেভিড উইলির তোপ সামলাতে ব্যর্থ আইরিশ টপ অর্ডার। উইকেট শিকারে সাকিব মাহমুদ ও আদিল রশিদ যোগ দিলে ২৮ রানেই ৫ উইকেট খোয়ায় সফরকারীরা।

ইনিংসের চতুর্থ বলে পল স্টালিংকে সাজঘরে পাঠান উইলি। তৃতীয় ওভারে অধিনায়ক অ্যান্ড্রু বালবার্নির উইকেট তুলে নেন। সপ্তম ওভারে টানা দুই বলে গ্যারেথ ডেলানি ও লর্কান টাকারকে। মাঝে অভিষিক্ত হ্যারি টেক্টরকে গোল্ডেন ডাকের স্বাদ দেন সাকিব মাহমুদ।

উইলির হ্যাটট্রিক ঠেকিয়ে দেয়া কার্টিস ক্যাম্পার প্রতিরোধ গড়েন অভিজ্ঞ কেভিন ও’ব্রায়েনকে নিয়ে। ষষ্ঠ উইকেটে ৫০ রানের জুটি ভাঙেন আদিল রশিদ। ২২ রান করে ফেরেন কেভিন ও’ব্রায়েন। এরপর ম্যাকব্রাইন চড়াও হন ইংলিশ বোলারদের উপর। ক্যাম্পারকে নিয়ে ৬৬ রানের জুটি গড়ার পর ৪৮ বলে ৪০ রান করে ফেরেন ম্যাকব্রাইন। ক্রেইগ ইয়ংকে বিদায় করে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো পাঁচ উইকেট নেন উইলি, ৩০ রান খরচায়। তার আগের সেরা ছিল ৩/৩৪। দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম নেওয়া ২১ বছর বয়সী অলরাউন্ডার ক্যাম্পার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ১১৮ বলে চারটি চারে অপরাজিত থাকেন ৫৯ রানে। আগামী শনিবার একই ভেন্যুতে সিরিজ নিশ্চিত করতে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড।

টানা টেস্ট সূচির কারণে ইংল্যান্ড ওয়ানডে দলের নিয়মিত সদস্যদের কয়েকজন ছিলেন না এই ম্যাচে। থাকবেন না সিরিজের বাকি দুই ম্যাচেও।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
আয়ারল্যান্ড ১৭২, ৪৪.৪ ওভার (ক্যাস্পার ৫৯, ম্যাকব্রাইন ৪০, ও’ব্রায়েন ২২, ডিলানি ২২, উইলি ৫/৩০, মাহমুদ ২/৩৬, রশিদ ১/২৬, কারান ১/৩৭)
ইংল্যান্ড ১৭৪/৪, ২৭.৫ ওভার (বিলিংস ৬৭*, মরগান ৩৬*, ভিন্স ২৫, ইয়ং ২/৫৬, ক্যাম্পার ১/২৬)
ফল: ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *