কমেছে স্বর্ণের দাম

কমেছে স্বর্ণের দাম। দুই সপ্তাহের ব্যবধানে সবচেয়ে ভালো মানের স্বর্ণের দাম ভরিতে এক হাজার ১৬৬ টাকা কমে ৭৭ হাজার ৬৮২ টাকায় নেমেছে। অন্য মানের স্বর্ণের দামও একই হারে কমেছে।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)। মঙ্গলবার থেকে নতুন দর কার্যকর হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমায় দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম কমানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগারওয়ালা।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ধাক্কায় বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম বেড়ে যাওয়ায় গত ৮ই মার্চ দেশের বাজারে ভালো মানের স্বর্ণের দাম ভরিতে ১ হাজার ৫০ টাকা বাড়িয়ে ৭৯ হাজার ৩১৫ টাকা নির্ধারণ করেছিল বাজুস। তার চার দিন আগে ৪ মার্চ বাড়ানো হয়েছিল ভরিতে ৩ হাজার ২৬৫ টাকা।

এরপর বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমতে শুরু করায় গত ১৫ই মার্চ দেশের বাজারে ভরিতে ১ হাজার ১৬৬ টাকা কমানোর ঘোষণা দেয় বাজুস। ২১শে মার্চ কমানো হয় ভরিতে আরও ১ হাজার ৫০ টাকা।

কিন্তু বিশ্ববাজারে দাম বাড়ায় গত ১১ই এপ্রিল সবচেয়ে ভালো মানের স্বর্ণের দাম ভরিতে ১ হাজার ৭৫০ টাকা বাড়িয়ে ৭৮ হাজার ৮৪৯ টাকা নির্ধারণ করেছিল বাজুস।

বাজুসের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক বাজার ও স্থানীয় বুলিয়ন মার্কেটে স্বর্ণের মূল্য হ্রাস পেয়েছে। তাই সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে বাজুসের মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণসংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক বাংলাদেশের বাজারে স্বর্ণের দাম কমানো হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে সবচেয়ে ভালো মানের ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি স্বর্ণ কিনতে লাগবে ৭৭ হাজার ৬৮২ টাকা। সোমবার পর্যন্ত এই মানের স্বর্ণ ৭৮ হাজার ৮৪৯ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

কমেছে ১ হাজার ১৬৬ টাকা। ২১ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম একই পরিমাণ কমে এখন ৭৪ হাজার ১৮৩ টাকা হয়েছে। গত দুই সপ্তাহ ৭৫ হাজার ৩৪৯ টাকায় বিক্রি হয়েছে এই মানের স্বর্ণ। আর ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম ৯৯১ টাকা কমে হয়েছে ৬৩ হাজার ৫৬৯ টাকা। সোমবার পর্যন্ত ৬৪ হাজার ৫৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

এদিকে সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরির দাম ৭৫৮ টাকা কমে হয়েছে ৫৩ হাজার ৭১ টাকা। ৫৩ হাজার ৮২৯ টাকায় বিক্রি হয়েছে এই দুই সপ্তাহ।

তবে রুপার দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। আগের দামেই বিক্রি হবে এই ধাতু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *