জীবননগরে সোনার বারসহ বিজিবি ও সিআইডির হাতে আটক ২

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার গয়েশপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সোমবার সন্ধ্যায় জীবননগর-গোয়ালপাড়া সড়কের মোল্লা ব্রিকসের সামনে নাজমুল(৩২) নামের এক চোরা কারবারিকে ৪ পিস সোনার বারসহ আটক করেন।

এসময় মজিদ(৩০) নামের অপর চোরা কারবারি পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় জীবননগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।বিজিবির এক বার্তার সুত্র ধরে জানা যায়, জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া গ্রামের শখের আলীর ছেলে তাজমুল ইসলাম ও একই গ্রামের হাকিম আলীর ছেলে মজিদ শুল্ক ফাঁকি দিয়ে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বেশ কিছু সোনার বার ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে সীমান্তের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

গয়েশপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা বিষয়টি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান পরিচালনা কালে তাজমুলকে আটক করেন এবং তার দখল থেকে ৪৪৯.৫৩ গ্রাম ওজনের চারটি সোনার বার উদ্ধার করেন। ঘটনার সময় মজিদ পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় জীবননগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।এদিকে জীবননগর উপজেলায় গোল্ডেন ওবায়দুল নামে পরিচিত ওবায়দুল্লাহকে(৫৫) মঙ্গলবার সকালে তিনটি স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় জেলা সিআইডি পুলিশের একটি চৌকস টিম তাকে গ্রেফতার করেন। ওবায়দুল্লাহ জীবননগর বাজারপাড়ার মৃত ফয়জুল্লাহ মোল্লার ছেলে। সে আন্তঃজেলা স্বর্ণ চোরা কারবারি সিন্ডিকেটের সক্রিয় সদস্য হিসাবে পরিচিত। জেলার বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন চোরা কারবারিসহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে জব্দকৃত সোনার মালিক হিসাবে দাবি করার গুঞ্জন এলাকায় ছিল।

অন্যদিকে সে সম্প্রতি তিনটি স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় জব্দকৃত সোনার মালিক দাবি করে আদালতে আবেদন করেন। আদালত ব্যাপারটি আমলে নিয়ে তা সংশ্লিষ্ট তদন্তকারি সংস্থাকে তদন্তের আদেশ দেন।চুয়াডাঙ্গা জেলা গোয়েন্দা(সিআইডি) সংস্থার চৌকস সাব-ইন্সপেক্টর আশরাফুল ইসলাম বলেন, ওবায়দুল্লাহ জুয়েলারি ব্যবসার আড়ালে জেলার সোনা পাচার সিন্ডিকেটের মুল নায়ক হিসাবে দাযিত্ব পালন করে আসছে। সে একটি বিরাট সিন্ডিকেটের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিল। জেলায় ইতিপূর্বে সে সকল সোনার চালান জব্দ করা হয়েছে,তার মধ্যে তিনটি মামলার ঘটনায় আটককৃত সোনার মালিক দাবি করে আদালতে আবেদন করেছে। এ সব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে যথেষ্ট প্রমান পাওয়া যায় যে,ওবায়দুল্লাহ স্বর্ণ চোরাচালান সিন্ডিকেটের মুল হোতা হিসাবে জেলাকে নিয়ন্ত্রণ করছে।

এ সব তথ্যের ভিত্তিতে জেলা সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হক স্যারের নির্দেশেনায় আমি ও সাব-ইন্সপেক্টর শরিফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ তাকে ওসব মামলায় মঙ্গলবার বিকালের দিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। তাকে আরো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করা হচ্ছে।

এদিকে ওবায়দুল্লাহ আটকের খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছড়িয়ে পড়লে তার বিরুদ্ধে ব্যাপক মন্তব্য করতে দেখা যায়। তাকে অনেকেই স্বর্ণ চোরাচালান সিন্ডিকেটের হোতা হিসাবে মন্তব্য করেছেন। আবার অনেকের দাবি ওবায়দুল্লাহকে ব্যাপক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলে জীবননগর শহরের মুখোশধারি সমাজপতি হোতাদের নাম বেরিয়ে আসবে

৬০তম ব্যাচ কারারক্ষীদের শপথ গ্রহণ ও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত।

কাশিমপুরে সমাপনী কুচকাওয়াজ ও শপথ হয় বিভিন্ন জেলা কারাগার থেকে আসা কারারক্ষীদের । প্রশিক্ষণে সর্বমোট ৩০১ জন কারারক্ষী অংশগ্রহণ করেন।...

Read more

সর্বশেষ

ADVERTISEMENT

© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত


সম্পাদক ও প্রকাশক : মাে:শফিকুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক : এডভােকেট-মোঃ আবু জাফর সিকদার
প্রধান প্রতিবেদক: মোঃ জাকির সিকদার

কার্যালয় : হোল্ডিং নং ২৮৪, ভাদাইল, আশুলিয়া, সাভার, ঢাকা-১৩৪৯

যোগাযোগ: +৮৮০ ১৯১ ১৬৩ ০৮১০
ই-মেইল : [email protected]

দৈনিক আমাদের খবর বাংলাদেশের একটি বাংলা ভাষার অনলাইন সংবাদ মাধ্যম। ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ থেকে দৈনিক আমাদের খবর, অনলাইন নিউজ পোর্টালটি সব ধরনের খবর প্রকাশ করে আসছে। বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রচারিত অনলাইন সংবাদ মাধ্যমগুলির মধ্যে এটি একটি।

ADVERTISEMENT
x