ত্রাণ বিতরণ ও জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন মোস্তাক খান

শফিকুল ইসলামঃ

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশে অঘোষিত লক ডাউনে কর্মহীন অসহায় দুস্থ প্রতিবন্ধী প্রায় সাড়ে চার শত পরিবারের মাঝে নিয়মিত বাড়ি বাড়ি গিয়ে সরকারি নির্দেশনা মেনে দুরত্ব বজায় রেখে নিজ উদ্যোগে নিজস্ব অর্থয়ানে চাল, ডাল, আলু, পেয়াজ, তেল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন আশুলিয়ার ধামসোনা ইউনিয়ন আ.লীগের সাবেক ত্রাণ ও সমাজ কল্যান সম্পাদক ৬নং বাসিন্দা মোস্তাক খান। এছাড়াও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে
হ্যান্ড স্যানিটাইজার মাস্ক ও লিফলেট নিয়মিত বিতরণ করছেন এবং পাশাপাশি প্রতিদিন হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে ধামসোনার ৬নং ওয়ার্ডের ভাদাইল এলাকায় ঘুরে ঘুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা মূলক তথ্য পরিবেশন করে যাচ্ছেন। এছাড়াও তার নেতৃত্বে প্রায় ২০ জন সেচ্ছাসেবী মাঠ পর্যায়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা মূলক কার্যক্রমে যুক্ত রয়েছেন। তারা সকাল থেকে মধ্যে রাত পর্যন্ত নিরলসভাবে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। ধারাবাহিকভাবে মােস্তাক খানের এমন সব সামাজিক কর্মকান্ডে উচ্ছ্বাসিত অত্র এলাকার জন সাধারণ ও আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা।
এ প্রসঙ্গে প্রচারবিমুখ এই মানুষটি জানান, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে দেশে অঘোষিত লকডাউনে প্রায় সব কিছু বন্ধ রয়েছে। অপ্রয়োজনে কেউ বাড়ি থেকে বাহির হচ্ছেন না। এতে করে অসহায়, দুস্থ, প্রতিবন্ধী, কর্মহীন দিনমজুর শ্রমিকরা পড়েছে চরম বিপাকে । কর্ম বন্ধ হওয়ায় তারা পরিবারের জন্য খাদ্য জোগান দিতে পারছেন না। তাই নিজ উদ্যোগে এসব মানুষকে খুঁজে খুজে খাবার বিতরণ করছি। আমার এই কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। এবং নিয়মিত হ্যান্ড স্যানিটাইজার মাস্ক ও লিফলেট বিতরণ করছি এবং পাশাপাশি প্রতিদিন হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে অত্র এলাকায় ঘুরে ঘুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা মূলক সতর্কবার্তা পৌঁছে দিচ্ছ।
এসময় তিনি আরো বলেন, নিজের প্রচার প্রচারণার জন্য নয়, অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আহবানে সাড়া দিয়ে এবং সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই আমি এগুলো করছি। তিনি আরো বলেন, দেশের এই ক্রান্তিকালে আসুন আমরা যার যার অবস্থান থেকে বিপদগ্রস্ত এই মানুষের পাশে দাঁড়াই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *