পাইপ বোমা বসানোর পেছনে দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজতে পুরস্কার ঘোষণা

যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের সদর দফতরে পাইপ বোমা বসানোর পেছনে দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজতে পুরস্কার ঘোষণা করেছে মার্কিন গোয়েদা সংস্থা এফবিআই। খবর রয়টার্সের।এক টুইটার পোস্টে এফবিআই জানায়, মার্কিন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলো বুধবার রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটি ও ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কমিটির সদর দফতরে একটি করে মোট দুটি পাইপ বোমা পাওয়ার খবর জানিয়েছে। পোস্টে হুডি ও গ্লাভস পরিহিত এবং হাতে একটি বস্তু বহনকারী এক ব্যক্তির ছবিও প্রকাশ করেছে এফবিআই।

পোস্টে বলা হয়, ‘এফবিআই’র ওয়াশিংটনের ফিল্ড অফিস অপরাধীর স্থান ও গ্রেফতারে সহায়তায় তথ্য দিলে ৫০ হাজার ডলার পর্যন্ত পুরস্কার ঘোষণা করছে।’ট্রাম্প হামলাকারীদের প্রথমে প্রশংসা করলেও পরে সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, হামলাকারীরা আমেরিকার গণতন্ত্রকে কলুষিত করেছে এবং তাদের অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে।

জো বাইডেনকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটলে আইনপ্রণেতারা সেশনে বসলে সেখানে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা হামলা চালায়। হামলাকারীরা ভবনের জানালা ভাঙচুর ও জিনিসপত্র লুটপাট শুরু করলে সিনেটর ও কংগ্রেসম্যানরা নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে বাধ্য হন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ মোট পাঁচজন মারা গেছেন।

হামলার পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে কংগ্রেসে জো বাইডেনকে যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়া হয়। এছাড়া কয়েকজন রিপাবলিকান সিনেটর বাইডেনের জয়ের বিরুদ্ধে ভোট দিয়ে ফলাফল পরিবর্তনের প্রস্তাব আনলে সেটিও বাতিল করে দেয় সিনেট।

সিএনএন জানিয়েছে, এ ঘটনায় ওয়াশিংটন মেট্রোপলিটন পুলিশ এখন পর্যন্ত ৮০ জনকে গ্রেফতার করেছে। এদের অধিকাংশই গ্রেফতার হয়েছেন কারফিউ লঙ্ঘনের দায়ে। এছাড়া হামলার পরে ট্রাম্প প্রশাসনের মোট নয়জন কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *