বিশ্বে তুলনামূলক ডলারের দাম সবচেয়ে কম বেড়েছে বাংলাদেশে

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর মুদ্রা ডলারের দাপটে বেসামাল হয়ে পড়েছে বিশ্বের অর্থনীতি। চাহিদা অনুযায়ী ডলার মিলছে না কোথাও। দেশে বেড়েই চলেছে ডলারের দাম, কমছে টাকার মান। ডলারের এই সংকটে পণ্য আমদানি ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে। এতে করে বাড়ছে পণ্যের দাম। যা বাড়ন্ত মূল্যস্ফীতির পারদকে আরও উপরের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

ডলারের এই দাপট শুধু বাংলাদেশেই নয়, ভারত, পাকিস্তান, চীনসহ অন্য সব দেশেই বেড়েছে ডলারের দাম। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে বড় অর্থনীতির ১২টি দেশের গত এক বছরের মুদ্রা বিনিময় হার বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, বাংলাদেশি মুদ্রা টাকার বিপরীতে ডলারের দাম সবচেয়ে কম বেড়েছে। যা মাত্র ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি বেড়েছে পাকিস্তানের মুদ্রা রুপির বিপরীতে, ২০ দশমিক ৭৪ শতাংশ। ভারতের মুদ্রা রুপির বিপরীতে ডলারের দর বেড়েছে ৬ দশমিক ১১ শতাংশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যে দেখা যায়, আন্তব্যাংক মুদ্রাবাজারে বৃহস্পতিবার (১৯ মে) টাকা ও ডলারের বিনিময় হার ছিল ৮৭ টাকা ৫০ পয়সা। অর্থাৎ ১ ডলারের জন্য ৮৭ টাকা ৫০ পয়সা খরচ করতে হয়েছে। এক বছর আগে গত বছরের ১৮ মে এই বিনিময় হার ছিল ৮৪ টাকা ৬৫ পয়সা। এ হিসাবেই গত এক বছরে ডলারের বিপরীতে টাকার মান কমেছে ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

তবে বাংলাদেশে সব সময়ই আন্তব্যাংক মুদ্রাবাজার বা ব্যাংক রেটের চেয়ে ব্যাংকগুলো বেশি দামে ডলার বিক্রি করে। কার্ব মার্কেট বা খোলা বাজেরেও বেশি ছিল ডলারের দাম। সাম্প্রতিক সময়ে এই ব্যবধান আরও বেড়েছে। আন্তব্যাংক মুদ্রাবাজারে বৃহস্পতিবার ৮৭ টাকা ৫০ পয়সায় ডলার বিক্রি হলেও ব্যাংকগুলো তার চেয়ে ৭/৮ টাকা বেশি দামে ডলার বিক্রি করেছে।

ব্যাংকগুলোর ওয়েবসাইটে দেখা যায়, রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংক বৃহস্পতিবার ৯২ টাকা ৪৫ পয়সা দরে ডলার বিক্রি করেছে। জনতা ব্যাংক করেছে ৯৪ টাকায়। অগ্রণী ব্যাংক বিক্রি করেছে ৯২ টাকা ৫০ পয়সা দরে। আর বেসরকারি ইস্টার্ন ও প্রইম ব্যাংক ৯৮ টাকা দরে নগদ ডলার বিক্রি করেছে। খোলাবাজারে ডলারের দর ১০০ টাকা ছাড়িয়ে গেলেও তা বৃহস্পতিবার ৯৬ টাকায় নেমে আসে।

গত ৯ মাসে বাংলাদেশি মুদ্রা টাকার বিপরীতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশ যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলারের দর বেড়েছে ৩ দশমিক ১৮ শতাংশ। সাম্প্রতিক সময়ে ভারত সরকারও ডলারের বিপরীতে তাদের মুদ্রার ব্যাপক অবমূল্যায়ন করেছে। বৃহস্পতিবার রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া বড় দরপতন করেছে রুপি। এখন ডলার ও ভারতীয় রুপির বিনিময় হার প্রায় ৭৮ রুপি।

যা এক বছর আগে ২০২১ সালের ১৯মে ছিল ৭৩ রুপির কিছু বেশি। এ হিসাবেই ডলারের বিপরীতে রুপির মান কমেছে ৬ দশমিক ১১ শতাংশ। ব্রিটিশ পাউন্ড দর হারিয়েছে ১২ দশমিক ২৪ শতাংশ। জাপানি ইয়েনের দরপতন হয়েছে ১৫ দশমিক ৪৪ শতাংশের অধিক। চীনের মুদ্রা চায়না ইয়েন মান হারিয়েছে ৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ। নেপালি রুপির দরপতন হয়েছে ৫ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

এক বছরে ডলারের বিপরীতে অষ্ট্রেলিয়ান ডলারের অবমূল্যায় হয়েছে ৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ এবং সাউথ আফ্রিকার মুদ্রা রেন্ডের দরপতন হয়েছে ১৫ দশমিক ৬১ শতাংশ। মুদ্রাবাজার স্বাভাবিক রাখতে ডলার বিক্রি করেই চলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সব মিলিয়ে চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সাড়ে ১০ মাসে (২০২১ সালের ১ জুলাই থেকে ১৯মে পর্যন্ত) ৫৫০কোটি (৫.৫০ বিলিয়ন) ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এরপরও বাজারের অস্থিরতা কাটছে না। বেড়েই চলেছে ডলারের দর।

চীনকে চারিদিক থেকে ঘিরে ধরে তৈরি হচ্ছে আমেরিকান সামরিক ঘাঁটির মালা

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ফিলিপাইন একটি নতুন সামরিক চুক্তিতে সই করেছে। চুক্তির মূল বিষয় হলো, ফিলিপাইনের চারটি সামরিক ঘাঁটি থেকে যুক্তরাষ্ট্র...

Read more

সর্বশেষ

ADVERTISEMENT

© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত


সম্পাদক ও প্রকাশক : মাে:শফিকুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক : এডভােকেট-মোঃ আবু জাফর সিকদার
প্রধান প্রতিবেদক: মোঃ জাকির সিকদার

কার্যালয় : হোল্ডিং নং ২৮৪, ভাদাইল, আশুলিয়া, সাভার, ঢাকা-১৩৪৯

যোগাযোগ: +৮৮০ ১৯১ ১৬৩ ০৮১০
ই-মেইল : [email protected]

দৈনিক আমাদের খবর বাংলাদেশের একটি বাংলা ভাষার অনলাইন সংবাদ মাধ্যম। ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ থেকে দৈনিক আমাদের খবর, অনলাইন নিউজ পোর্টালটি সব ধরনের খবর প্রকাশ করে আসছে। বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রচারিত অনলাইন সংবাদ মাধ্যমগুলির মধ্যে এটি একটি।

ADVERTISEMENT
x