ভারতের দিল্লির বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহত  ৪২

অনলাইন ডেস্ক 

 

ভারতের  দিল্লিতে বিক্ষোভ-সহিংসতায় ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ৩ শতাধিক মানুষ। এখনও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে উত্তর-পূর্ব দিল্লির মৌজপুর, বাবরপুর, জাফরাবাদের মতো বেশ কয়েকটি এলাকায়।  শুক্রবারের নামাজের আগে নিরাপত্তার লক্ষ্যে গুরুগ্রামে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। প্রতিহিংসার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৮টি এফআইআর দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ। সহিংসতার ঘটনা তদন্তে দুটি বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে।

দোকান-পাট কিছুক্ষণ খোলা রাখার জন্য কোথাও কোথাও কয়েক ঘণ্টার জন্য কারফিউ শিথিল করা হয়েছে। গত রোববার সহিংসতা শুরুর পর থেকেই গুরুগ্রামে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয় এদিকে, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তবে গত কয়েকদিনের সহিংসতা নিয়ে কোনো ধরনের বক্তব্য না দেয়ায় তাকে নিয়ে বেশ সমালোচনা হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও সহিংসতা শুরুর পর চুপই ছিলেন। সহিংসতার তিনদিন পর তিনি সবাইকে শান্তি ও ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী (সিএএ) আইনকে কেন্দ্র করে গত রোববার থেকে দিল্লির উত্তর-পূর্বের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা-সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। সহিংসতার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এর আগে কড়া বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। শুক্রবার থেকে এসব বিধি-নিষেধ কমে আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।এদিকে, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ঘোষণা দিয়েছেন যে, সহিংসতার ঘটনায় হতাহত ব্যক্তিদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে। নিহত বয়স্ক পরিবারকে ১০ লাখ ও নিহত নাবালক পরিবারকে ৫ লাখ রুপি করে আর্থিক সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *