রামদা হাতে দৌড়ানো লোকটি শ্রমিক লীগ নেতা, হেফাজতকর্মী নন

স্যোশাল মিডিয়াতে হরহামেশাই বিভিন্ন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গুজব ছরানো হয়। এই কাজে অনেক সময় ব্যবহার করা হয় পুরানো ছবি। এমন সব ছবি ব্যবহার করা হয় যা দেখে মনে হয় সাম্প্রতিককালের ছবি।হিফাজত ইসলামের হরতাল এবং সমসাময়ীক ঘটনার সময়ও দেখা গেছে বেশ কিছু গুজব ছড়ানো হয়েছে বিভিন্ন পুরানো ছবি এবং ভিডিও দিয়ে।

সাম্প্রতি ফেসবুকে রামদা হাতে পাঞ্জাবি পরিহিত এক ব্যক্তির ছবি ভাইরাল হয়েছে। যাকে হেফাজত ইসলামের কর্মী হিসেবে দেখাতো হয়েছে। রামদা হাতে পাঞ্জাবি পরিহিত এক ব্যক্তির ছবি পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, ব্যক্তিটি হেফাজত ইসলামের কর্মীর। তিনি নাকি গত ২৬ মার্চ হেফাজতে ইসলামের হরতালে রামদা নিয়ে এভাবে অ্যাকশনে ছিলেন।

গত ২৯ মার্চ ‘ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন সমর্থক গোষ্ঠী’ নামের গ্রুপে ছবিসহ একটি পোস্ট করা হয়।ফ্যাক্ট চেক কোম্পানি বুম বিডির ছবিটি দৃষ্টিগোচর হলে ছবিটি নিয়ে একটি ফ্যাক্ট চেক পোষ্ট করেন। সেখানে তারা বিস্তারিত তুলে ধরেছে।

তারা জানিয়েছে, ছবিটি পুরনো এবং ছবির ব্যক্তিটি হেফাজতে ইসলামের কেউ নন। রিভার্স ইমেজ সার্চ করে দেখা গেছে, পাঞ্জাবি পরিহিত ব্যক্তির ছবিটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছে দৈনিক প্রথম আলোর একটি খবরে। ২০২০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ‘পাকুন্দিয়ায় আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, অস্ত্র নিয়ে মহড়া’ শিরোনামে এক খবরে উক্ত ছবিটি প্রকাশিত হয়।

উক্ত প্রতিবেদনে ছবিটির ক্যাপশনে বলা হয়, ‘সংঘর্ষের সময় রাম–দা নিয়ে ধাওয়া দিচ্ছেন পাকুন্দিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি নাজমুল হক। রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পাকুন্দিয়া থানার পাশে’।

অর্থাৎ ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত শ্রমিক লীগ নেতার ছবিকে হেফাজত কর্মীর বলে ভুয়া তথ্য ছড়ানো হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *