আজ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ভোট গ্রহণ

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন আজ। শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) এ ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

এবার সমিতির ভোটার ৪২৮ জন। তবে ২০১৮ সালে মিশা-জায়েদ কমিটি দ্বারা ভোটাধিকার হারানো সমিতির ১৮৪ জন সদস্য এবারও ভোট দিতে পারছেন না।

এবার নির্বাচনে দুটি প্যানেলের একটি থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ আক্তার।

তারকাবহুল এ প্যানেলে যারা রয়েছেন- সহ-সভাপতি চিত্রনায়ক রিয়াজ আহমেদ ও ডি এ তায়েব, সহ-সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক, সাংগঠনিক সম্পাদক অভিনেত্রী শাহনুর, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক চিত্রনায়ক নিরব হোসেন, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক অভিনেতা আরমান, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক চিত্রনায়ক মামনুন হাসান ইমন ও কোষাধ্যক্ষ পদে প্রার্থী হয়েছেন অভিনেতা আজাদ খান।

একই প্যানেলের কার্যকরী পরিষদের সদস্য পদে প্রার্থী হয়েছেন- খল-অভিনেতা অমিত হাসান, চিত্রনায়ক ফেরদৌস, চিত্রনায়ক শাকিল খান, অভিনেতা নানা শাহ, কমেডিয়ান আফজাল শরীফ, খল-অভিনেতা সাংকো পাঞ্জা, অভিনেত্রী জেসমীন, চিত্রনায়িকা কেয়া, পরীমনি, খল-অভিনেতা গাঙ্গুয়া ও সীমান্ত।

অন্যদিকে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন গত দুই মেয়াদে নির্বাচিত মিশা সওদাগর-জায়েদ খান জুটি। এ প্যানেলের অন্যান্য পদের প্রার্থীরা হলেন, সহ-সভাপতি খল-অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল, সহ-সাধারণ সম্পাদক অভিনেতা সুব্রত, সাংগঠনিক সম্পাদক চিত্রনায়ক আলেকজান্ডার বো, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক চিত্রনায়ক জয় চৌধুরী, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক অভিনেতা জেকে আলমগীর, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক অভিনেতা জাকির হোসেন এবং কোষাধ্যক্ষ পদপ্রার্থী অভিনেতা ফরহান।

এছাড়া একই প্যানেল থেকে কার্যকরী পরিষদের সদস্য পদে নির্বাচন করছেন- অভিনেত্রী রোজিনা, অঞ্জনা, সুচরিতা, অরুণা বিশ্বাস, মৌসুমী, অভিনেতা আসিফ ইকবাল, বাপ্পারাজ, আলীরাজ, নাদের খান ও হাসান জাহাঙ্গীর।

নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে দুই প্যানেলের প্রার্থীরাই বেশ আশাবাদী। তবে এবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে মনে করছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা।

এবার শিল্পী সমিতির নির্বাচনে কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন পীরজাদা হারুন। অন্য দুই সদস্য হলেন, বিএইচ নিশান ও বজলুর রাশীদ চৌধুরী। আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে সোহানুর রহমান সোহানকে। সদস্য মোহাম্মদ হোসেন জেমী ও মোহাম্মদ হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *