জুয়েল শেখের ভবিষ্যত নস্ট করতে তাকে শিকলে বন্দি করে রেখেছে তার সৎ মা

আব্দুস সালাম শাহীন:

বগুড়ার শেরপুরে ১২ বছরের কিশোরে জুয়েল শেখের ভবিষ্যত নস্ট করতে তাকে শিকলে বন্দি করে রেখেছে তার সৎ মা মমতা বেগম। এমন অভিযোগ তুলে প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের বাগড়া কলোনীর বাসিন্দা কিশোর জুয়েলের বাবা দিনমজুর মাহবুব শেখ ঢাকায় কাজ করেন। সেই সুযোগে জুয়েলের সৎ মা মমতা বেগম জুয়েলের ভবিষ্যত নস্ট করতে তাকে পাগল বানানোর উদ্দেশ্যে জুয়েলের হাত পায়ে শিকল দিয়ে বন্দি করে রেখেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে জুয়েলের এর সৎ মা মমতা বেগম বলেন, জুয়েল বিভিন্ন স্থানে কাজ করার সময় টাকা চুরি করে তাই তাকে শিকল বন্ধি করে রাখা হয়েছে।
বাগড়া কলোনির এলাকার ব্যবসায়ী জুয়েল রানা ও ইব্রাহীম হোসেন বলেন, দরিদ্র পরিবারের সন্তান হলেও শিশু জুয়েল ছেলে হিসাবে ভালো। এই বয়সে মানুষ অনেক কিছুই করে। তাকে বুঝিয়ে বললেই সে শুনবে। এছাড়াও সে স্বাবাকিক একটা ছেলে সবকিছুর ভালোভাবেই উত্তর দিতে পারে। তাকে শিকল দিয়ে হাত ও পা বেধে রাখা সত্যিই দুঃখজনক ঘটনা। তারা আরোও বলেন, সৎ মা ঠিকমতো তাকে যতœ না করে তাকে শিকল বন্দি করে পাগল বানানোর চেস্টা করছে। এলাকার সচেতন মহল জুয়েল শেখকে শিকলবন্দী অবস্থা থেকে মুক্ত করতে শেরপুর উপজেলা ও থানা প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, কাউকে শিকলে বন্দি রেখে তার জীবন বাধাগ্রস্ত করা যাবেনা। ঘটনাটি আমি শুনে সেখানে ফোর্স পাঠিয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *