তিন মুসলিম দেশের সঙ্গে সখ্যতা গড়তে চায় ইসরায়েল

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ তিন দেশ ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও ব্রুনেইর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করতে চায় ইসরায়েল। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) এক সাক্ষাৎকারে এ আগ্রহের কথা জানিয়েছেন সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত সাগি কারনি। খবর প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এর আগে গত মাসে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় টানা ১১ দিন হামলা চালিয়েছিল ইসরায়েল। এতে নারী-শিশুসহ আড়াই শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন। হামাসের হামলায় ১৩ ইসরায়েলি নাগরিকও নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ইহুদী রাষ্ট্রটির তীব্র নিন্দা জানিয়েছিল এই তিনটি মুসলিম দেশ। ঘটনাটিকে ‘ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর আগ্রাসন’ উল্লেখ করেছিল তারা।

ইসরায়েলের সঙ্গে দেশ তিনটি আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো সম্পর্ক স্থাপন করেনি এবং ভবিষ্যতেও করবে না বলে প্রায় সময়ই তারা জানিয়েছে। ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংকট নিরসনে ‘দুই রাষ্ট্রভিত্তিক’ সমাধান চায় তারা।

এ বিষয়ে ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত বলেন, মুসলিমপ্রধান দেশ তিনটির নেতারা সংঘাতের প্রকৃত ধরন উপলব্ধি করতে না পেরেই সমালোচনা করেছেন। এটা ফিলিস্তিনি জনগণের বিরুদ্ধে নয়, বরং ইসরায়েল ও হামাসের সংঘাত।

ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও ব্রুনেইয়ের সঙ্গে সুসম্পর্ক স্থাপনের আগ্রহের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, তাদের জন্য আলোচনার দরজা উন্মুক্ত আছে এবং আমরা সবসময় প্রস্তুত। সুসম্পর্ক স্থাপনের পথ খুব একটা কঠিন হবে বলে মনে করি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *