আমিনবাজারে দ্বিতীয় সালেপুর সেতুর উদ্বোধন

সাভারের আমিনবাজারে দ্বিতীয় সালেপুর সেতুর উদ্বোধন করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। মঙ্গলবার বেলা ১১.৩০ টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে তিনি চার লেন বিশিষ্ট সেতুটির উদ্বোধন করেন।

প্রায় ৪০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৬৪ মিটার লম্বা সেতুটির আগামী দুই বছরের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হবে।সেতুটি উদ্বোধনের আগে স্বাগত বক্তব্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, একসময় ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক মরণফাঁদ হিসেবে পরিচিত ছিল।
প্রায় প্রতিদিনই দুর্ঘটনা ঘটত এবং অনেক মানুষের প্রাণহানি হতো। আমি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে সড়কের বিভিন্ন স্থানে বাক প্রশস্তকরণ ডিভাইডার স্থাপনের মাধ্যমে সড়ক দুর্ঘটনাকে শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা হয়েছে।

এই সড়কের বিভিন্ন স্থান চার লেনে উন্নীত করার প্রকল্প নেয়া হয়েছে যাতে ভবিষ্যতে রাস্তা প্রশস্তকরণের সময় বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করতে না হয়।

তিনি বলেন, ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক এখন আর মরণফাঁদ নয় উল্লেখ করে মহাসড়কের গাবতলী থেকে নবীনগর পর্যন্ত সড়কটিকে ১০ লেনে উন্নীত করণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সরকার। আমি বলার পরও ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে এখনও ব্যানার-ফেস্টুন ঝুলানো রয়েছে। এছাড়া রাস্তার ধারে ময়লা ফেলে রাখার কারণে সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে।
মন্ত্রী আরও বলেন, শুধু রাস্তা নির্মাণ করলেই হবে না, রাস্তার রক্ষণাবেক্ষণ করতে হবে। পাশাপাশি নির্মাণকাজে গুণগত মান ফিরিয়ে আনতে হবে। বর্ষাকাল বেশি দূরে নয়, রাস্তা নির্মাণের পর এক পশলা বৃষ্টিতে যদি সেই রাস্তার ছাল-বাকলা উঠে যায় এরকম রাস্তা নির্মাণ করে কোনো লাভ নাই।

তাই কাজের গুণগত মান বজায় রেখে বর্ষার আগেই ক্ষতিগ্রস্ত সড়কগুলোকে মেরামত করে চলাচলের উপযোগী করার জন্য সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীদের নির্দেশনা প্রদান করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাভার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীম আরা নীপা, আমিন বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন, কাউন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান খান শান্ত, সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির রকিব আহমেদসহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *